• শাস্ত্রীয়-সঙ্গীতশিল্পী-চিন্ময়-লাহিড়ী
    কৃতি ব্যক্তিবর্গ,  তাঁতিবন্ধ,  তাঁতীবন্দ (গ্রাম),  সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব

    শাস্ত্রীয় সঙ্গীতশিল্পী চিন্ময় লাহিড়ী

    শাস্ত্রীয় সঙ্গীতশিল্পী চিন্ময় লাহিড়ী (২০ মার্চ, ১৯২০-১৭ আগস্ট, ১৯৮৪ খ্রি.) একজন স্বনামধন্য শাস্ত্রীয় সঙ্গীতশিল্পী। তিনি বিভিন্ন রাগে ঠুমরি, দাদরা, হোলি, ত্রিবট, চতুরঙ্গ, গীত, ভজন, গজল সহ বাংলা রাগপ্রধান সঙ্গীতের স্রষ্টা ছিলেন। জন্ম: চিন্ময় লাহিড়ীর জন্ম ১৯২০ খ্রিস্টাব্দের ২০ শে মার্চ পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার তাঁতিবন্দ ইউনিয়নের তাঁতিবন্দ গ্রামের জমিদার পরিবারে।  পারিবারিক জীবন: পিতা জীবনচন্দ্র লাহিড়ী পেশায় ছিলেন প্রকৌশলী, কর্মসূত্রে  লক্ষৌতে থাকতেন। মাতা সরোজবাসিনী দেবী। শৈশবে চিন্ময়ের আগ্রহ ছিল শরীরচর্চায় ও সঙ্গীতসাধনায়। শিক্ষা জীবন: পড়াশোনা লক্ষৌয়ের বয়েজ অ্যাংলো ইন্ডিয়ান স্কুলে। রবীন চট্টোপাধ্যায়ের নিকট তাঁর সঙ্গীত শিক্ষা শুরু হয়। লক্ষ্ণৌয়ের মরিস কলেজ অব মিউজিকে তিনি সঙ্গীত বিষয়ে শিক্ষা গ্রহণ করেন। কলেজের অধ্যক্ষ…

  • কামাল-লোহানীর-বিপ্লবমন্ত্রের-প্রথম-পাঠশালা
    কৃতি ব্যক্তিবর্গ,  মুক্তিযোদ্ধা,  সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব

    কামাল লোহানীর বিপ্লবমন্ত্রের প্রথম পাঠশালা

    কামাল লোহানীর বিপ্লবমন্ত্রের প্রথম পাঠশালা   ড. এম আবদুল আলীম   ০১.বাংলাদেশের উত্তর জনপদের এক ঐতিহ্যবাহী জেলা পাবনা। এ জেলার মানুষ ইতিহাস-ঐতিহ্য-সংস্কৃতির নানা গৌরব বুকে ধারণ করে আছে। পাল রাজত্বকালের শেষভাগে বরেন্দ্র অঞ্চলের মাটিতে আছড়ে পড়া কৈবর্ত বিদ্রোহে এখানকার মানুষ অংশগ্রহণ করেছিলো। মুসলিম শাসনামলে পাঠান-মোগল সেনাদের ছাউনি ছিলো এই মাটিতে। ইংরেজ আমলে এখানে সংঘটিত হয় সন্ন্যাসী বিদ্রোহ, কৃষক বিদ্রোহ, স্বদেশি আন্দোলনসহ নানা সংগ্রাম। ব্রিটিশদের বিতাড়িত করতে পাবনার মেয়েরা পর্যন্ত অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছিলো! বিপ্লবী চারু মজুমদার বিপ্লবের প্রথম পাঠ গ্রহণ করেছিলেন পাবনা এডওয়ার্ড কলেজ থেকে। পরবর্তীকালে ভাষা-আন্দোলন, স্বাধিকার-সংগ্রাম এবং মুক্তিযুদ্ধে এ মাটির সন্তানেরা বুক চিতিয়ে দাঁড়িয়েছেন। একাত্তরের পঁচিশে মার্চ অপারেশন…

  • চঞ্চল-চৌধুরী
    কামারহাট,  কৃতি ব্যক্তিবর্গ,  নাজিরগঞ্জ,  সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব

    অভিনেতা, মডেল, শিক্ষক ও গায়ক চঞ্চল চৌধুরী

    চঞ্চল চৌধুরী একাধারে একজন অভিনেতা, মডেল, শিক্ষক ও গায়ক। তিনি টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র দুই মাধ্যমেই অভিনয় করে থাকেন।  হাস্যরস অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে দুইবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। সেরা অভিনেতা বিভাগে একটি দর্শক জরিপ পুরস্কার ও দুটি সমালোচক পুরস্কার বিজয়সহ মোট বারোটি মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। জন্ম: চঞ্চল চৌধুরী ১৯৭৪ খ্রিস্টাব্দের ১লা জুন পাবনার জেলার সুজানগর উপজেলার অন্তর্গত নাজিরগঞ্জ ইউনিয়নের কামারহাট গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।  পারিবারিক জীবন: চঞ্চল চৌধুরীর পিতা রাধা গোবিন্দ চৌধুরী এবং মাতা নমিতা চৌধুরী। পাঁচ বোন ও তিন ভাইয়ের মধ্যে তিনি সবার ছোট। স্ত্রীর শান্তা। তিনি একজন ডাক্তার এবং একটি মেডিকেল কলেজের শিক্ষক।…

error: Content is protected !!