জহুরা ইরা বাল্যকাল থেকে কবিতা ও গল্প লিখে চলছেন। প্রকাশনা-কাব্যগ্রন্থ: স্মৃতির দরজায়, ঝরাপাতা, নিমগ্ন ভালোবাসার বৃক্ষ; উপন্যাস: সায়াহ্ন সমীরণ।তিনি ১৯৬২ সালের ২৪ মে পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার অন্তর্গত মানিকহাট ইউনিয়নের ভিটবিলা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

  • নারী
    কবিতা,  জহুরা ইরা,  সাহিত্য

    নারী, তুলু সোনা

    নারী জহুরা ইরা   আমি নারী সমাজ আমাকে ভাবতেই পারে তুচ্ছ তাতে আমার অস্তিত্বের বিশ্বাসে যায় আসে না কিছু আমি জড় নই। কেউ পারে না আমায় তার ইচ্ছে মত সাজাতে আমি বিধাতার গড়া, সৃষ্টির সেরা, আমি বাধ্য শুধু তাঁরই বিধান মানতে আমি মৃত লাশ নই নইকো আমি পঙ্গু মূক বধির আমি ধ্বংস করতে পারি সমাজের যত গ্লানিমাখা অনাসৃষ্টির॥ আমি দানবের সাথে লড়তে পারি বিদীর্ণ করতে পারি ভূতল আমি ঝর্ণাধারা হয়ে বইতে পারি মরুপ্রান্তরেও ফোটাতে পারি ফুলদল ৷ চাই না আমি খনিজ হয়ে অতল গহীনে থাকতে অকল্যাণের বিরুদ্ধে মন বিস্ফোরিত হতে চায় পৃথিবীতে আমি মানুষ, আমি নারী আমি উচ্ছ্বল, আমি জ্বলন্ত…

  • ভেজালের-সমারোহে
    কবিতা,  জহুরা ইরা,  সাহিত্য

    ভেজালের সমারোহে,স্মৃতি অনুভবে উজ্জ্বল দিন

    ভেজালের সমারোহে জহুরা ইরা   পরতে পরতে জড়িত ভেজাল, ভেজালের নেই শেষ, ভেজাল মুক্ত দেখার ইচ্ছে আমার বাংলাদেশ।। উক্তিতে ভেজাল যুক্তিতে ভেজাল বক্তৃতা কোন ছাড়, পরীক্ষায় ভেজাল নিরীক্ষায় ভেজাল ভাঙল শির দাঁড় ।। আশায় ভেজাল ভাষায় ভেজাল বিব্রত মানব জাতি জলেও ভেজাল তেলেও ভেজাল নিভবে জীবন বাতি ।। শিক্ষায় ভেজাল দীক্ষায় ভেজাল ভেজাল জীবন গড়ায় কইতে ভেজাল সইতে ভেজাল ভেজাল জীবন ধারায়।। রক্তে ভেজাল ভক্তে ভেজাল ভেজাল অস্তি মজ্জায় তথ্যে ভেজাল পথ্যে ভেজাল ভেজাল ঔষধ চিকিৎসায়।। অর্থে ভেজাল শর্তে ভেজাল ভেজাল চুক্তি নামায় মন্ত্রে ভেজাল যন্ত্রে ভেজাল জীবন বাঁচা দায়।। খাদ্যে ভেজাল বাদ্যে ভেজাল ভেজাল দেশ গড়ায় চাওয়ায় ভেজাল পাওয়ায়…

error: Content is protected !!