সেদিন-কি-আর-আসবে-কভু-ফিরে
কবিতা,  পথিক জামান,  সাহিত্য

সেদিন কি আর আসবে কভু ফিরে, তোমায় ভোলা সহজ নয়

সেদিন কি আর আসবে কভু ফিরে

পথিক জামান

 

ধানসিঁড়ি আর পদ্মা নদীর তীরে
আসবে কি আর মধুর অতীত ফিরে,
কাটবে কি আর রাখাল দিনের বেলা,
হায়রে জীবন হায়রে মধুর স্মৃতি
হায়রে আমার মধুর পল্লিগীতি
হায়রে আমার পুতুল পুতুল খেলা।
স্মৃতিকাতর মানুষগুলো ভাই
বাল্যকালের জন্য কাদেঁ তাই
মনটা আমার কেঁদে ওঠে
ছোট্ট শিশুর মতো,
মনটা বলে এমন হয়না কেনো
জন্মে মানুষ বুড়ো হয়না যেন
তাহলে কি দুঃখ অত হতো?
ছবির মতো দিনগুলো যায় চলে
কেউ ডাকে না মানুষ বৃদ্ধ হলে
সেই তো সবার বৃদ্ধকালের জ্বালা,
তারুণ্য যার ছিলো সারা অঙ্গে
বেড়াতো সে কত রঙে ঢঙে
নাতিরা কয় আসছে বুড়ো
পালা সবাই পালা।
এইতো নিয়ম এইতো বিধির খেলা,
আর করোনা নামাজ অবহেলা
যেদিন যাবে সেদিন কি আর
আসে?
নতুন শিশু আসবে ধরার পর
আলোকিত হবে মায়ের ঘর
বৃদ্ধরা সব চোখের জলে ভাসে।

আরও পড়ুন কবি পথিক জামানের কবিতা-
শুধু দীর্ঘ শাস ফেলি
আমার গানের পাখি
ভালোবাসি যারে

 

তোমায় ভোলা সহজ নয়

তোমায় ভুলতে তুমি আমায়
কহ যে,
তোমায় ভোলা যায় না অত
সহজে।
তুমি যত সহজ ভাবো অত
সহজ নয়।
আমার জায়গায় তুমি হলে বুঝতে
তা নিশ্চয়।
মিষ্টি মধুর হাসি হেসে
কত কথা কও,
এই জীবনে তুমি যেনো আমার
মত হও।
সেদিন তুমি বুঝবে সোনা কেমন
তোমার লাগে।
কেন আমি এমন করি বোঝনি
তা আগে।
আমার মত করে আমি তোমায়
ভালোবাসি,
কেমন করে ভুলবো বল তোমার
মুখের হাসি?
তুমি আমার চোখের কাজল
তুমি চোখের তারা,
কেমন করে থাকি বল
তোমার পরশ ছাড়া?
গভীর রাতে তোমার কথা
জাগে যখন মনে,
অশ্রুমালা জমে তখন
আমার দু’চোখ কোণে।
আবার আমি ঘুমিয়ে পড়ি
নতুন আলোর আশে,
ঘুমের ঘোরে স্বপন দেখি
তুমি আমার পাশে।

মনে সুখের বান ডেকে যায়
গাহে যে বুলবুল,
জেগে দেখি সবই মিথ্যা
সবই আমার ভুল।
রাতের বাতাস উদাস পথিক
ক্লান্ত ভরে চলে,
যেনো আমার ব্যথার বেদন
কেঁদে কেঁদে বলে ।
হেসে হেসে বললে সেদিন
আমায় ভুলে যান,
সেদিন হতে বন্ধ হল
আমার মুখের গান।

আরও পড়ুন কবিতা-
সাবাশ বাংলাদেশ
সময়ের দাবি
বসন্ত কোকিল

 

ঘুরে আসুন আমাদের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলফেসবুক পেইজে

সেদিন কি আর আসবে কভু ফিরে

Facebook Comments Box

প্রকৌশলী আলতাব হোসেন, সাহিত্য সংস্কৃতি বিকাশ এবং সমাজ উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে নিবেদিত অলাভজনক ও অরাজনৈতিক সংগঠন ‘আমাদের সুজানগর’-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং সাধারণ সম্পাদক। তিনি ‘আমাদের সুজানগর’ ওয়েব ম্যাগাজিনের সম্পাদক ও প্রকাশক। এছাড়া ‘অন্তরের কথা’ লাইভ অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধায়ক। সুজানগর উপজেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সাহিত্য, শিক্ষা, মুক্তিযুদ্ধ, কৃতি ব্যক্তিবর্গ ইত্যাদি বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করতে ভালোবাসেন। বিএসসি ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করে বর্তমানে একটি স্বনামধন্য ওয়াশিং প্লান্টের রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেকশনে কর্মরত আছেন। তিনি ১৯৯২ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ই জুন পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার অন্তর্গত হাটখালি ইউনিয়নের সাগতা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

error: Content is protected !!