রম্য-কবিতা
কবিতা,  সাহিত্য,  হুমায়ুন কবির

রম্য কবিতা

রম্য কবিতা
হুমায়ুন কবির

 

মঞ্চে সবাই বসছে জেঁকে যে যার কেদারায়
একে একে ভাষার তরে বক্তৃতা সব দেয়।
কেউবা বলে ভাষার জন্য শহীদ যারা হলো
সেই শহীদের মান রাখিতে বাংলা সবাই বলো।

 

স্কুল, কলেজ মাদ্রাসাতে বাংলা ভাষা চাই
অফিস আদালতে বাংলার বিকল্প নাই।

দর্শক শ্রোতার ভিতর থেকে একজন উঠে বলে
বক্তৃতা দেন মিশ্র ভাষায় কেমন করে চলে।

 

ইংরেজীতে লেখা কাগজ টেবিলের পাশে।
ভাষণদাতার কথা শুনে মুচকি মুচকি হাসে।
সভাপতি মন্ত্রী সাহেব ভাষণ দেবেন এবার
মঞ্চের দিকে চোখ কান মুখ খোলা যে সবার।

 

সভাপতি মঞ্চে উঠে সালাম দিয়ে বলেন
লেডিস জ্যান্টেলম্যানেরা কি সবাই ভাল আছেন?
দর্শক শ্রোতা চেঁচিয়ে বলে সভাপতি তরে
বাংলা ভাষার সভায় ইংলিশ বলেন কেমন করে?

 

সভাপতি বিনয় স্বরে বলে শোনেন ভাই

বাংলা ভাষার উপর আমার তেমন চর্চা নাই।
ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে লেখাপড়া করি

ভুলে গেছি বাংলা ভাষা এইজন্য ভাই সরি।

 

কথা দিলাম এর পরেতে শিখে বাংলা

ভাষা মঞ্চে উঠে পূরণ করবো সবার মনের আশা।
করতালি দিয়ে সবাই জানায় ধন্যবাদ

এই ভাবেতে চলছে আজও বাংলা জিন্দাবাদ।

 

আরও পড়ুন কবিতা-

সন্ধ্যা নামের আগে

বিষ

শুধু দীর্ঘ শ্বাস ফেলি

 

ঘুরে আসুন আমাদের ফেসবুক পেইজে

রম্য কবিতা

Facebook Comments Box

প্রকৌশলী মো. আলতাব হোসেন, সাহিত্য সংস্কৃতি এবং সমাজ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে নিবেদিত অলাভজনক ও অরাজনৈতিক সংগঠন "আমাদের সুজানগর"-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং "আমাদের সুজানগর" ওয়েব ম্যাগাজিনের সম্পাদক ও প্রকাশক। সুজানগর উপজেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সাহিত্য, শিক্ষা, মুক্তিযুদ্ধ, কৃতি ব্যক্তিবর্গ ইত্যাদি বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করতে ভালোবাসেন।বিএসসি ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করে বর্তমানে একটি স্বনামধন্য ওয়াশিং প্লান্টের রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেকশনে কর্মরত আছেন। তিনি ১৯৯২ সালের ১৫ জুন পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার অন্তর্গত হাটখালী ইউনিয়নের সাগতা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

error: Content is protected !!