স্মৃতির-অনুভবে-তুমি
কবিতা,  জাহাঙ্গীর পানু,  সাহিত্য

স্মৃতির অনুভবে তুমি

স্মৃতির অনুভবে তুমি

জাহাঙ্গীর পানু

 

এখনও হঠাৎ ঘুমের ঘোরে স্বপ্নে বিভোর হয়ে
তোমার স্পর্শ অনুভব করি।
ফাগুনের পাতা ঝরা শব্দের মাঝে এখনো শুনতে পাই
তোমার উত্তপ্ত নিঃশ্বাস
চৈত্রের খরত্তাপের মাঝে হঠাৎ বৈশাখী ঝড়োবৃষ্টি
হয়ে আচমকা এসেছিলে তুমি-
মম শুন্য হৃদয়ে।
আমার আপন হৃদয় সদা বিমোহিত হয়েছিলো
তোমার চোখের চাহনিতে।
কিন্তু আমিতো তোমার করযুগলে নিজের হাত রেখে;
আষাঢ়ের বৃষ্টিঝরা দুপুরে কখনও ভিজতে চাইনি,
শূন্য হৃদয় খানি যখন মুক্ত বিহঙ্গের মত
আকাশে উড়ে বেড়ায়।
পদ্মবিলের নীল সরোবরের বুকে মাথা রেখে
কখনও ঘুমোতে চেষ্টা করিনি।
পুষ্পিতা,
কবিতার খাতা খুলে কখনো চেয়ে দেখিনি
তোমার নাম কতবার লেখা হয়েছে।
শ্রাবণের বারিধারায় সিক্ত হয়ে
পদ্ম ফুলের ছবি আঁকা হয়নি কখনো।
আমার কবিতার ছন্দ তোমার
নরম হাতের স্পর্শে লাল পদ্ম হয়ে ফোটে।
তুমিতো কখনো দেখতে চাওনি-
সেই পদ্মফুলের ভিতরের রং লাল না নীল।
সাদা পাখিরা যখন আকাশে উড়ে বেড়ায় অথবা
কাশবনের ধারে হংস যুগল যখন আপন মনে
পানিতে ভেসে বেড়ায়।
তারই মতো কখনও বলিনি চলো,

দুজনে আকাশের নীলে কিংবা অথৈ সাগরে ভেসে বেড়াই।
আমি তো সবসময় নিজেকেই খুঁজে ফিরেছি;
সবুজ প্রকৃতি আর তোমার স্মৃতির মাঝে।

 

ঘুরে আসুন আমাদের ফেসবুক পেইজে

Facebook Comments Box

প্রকৌশলী মো. আলতাব হোসেন, সাহিত্য সংস্কৃতি এবং সমাজ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে নিবেদিত অলাভজনক ও অরাজনৈতিক সংগঠন "আমাদের সুজানগর"-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং "আমাদের সুজানগর" ওয়েব ম্যাগাজিনের সম্পাদক ও প্রকাশক। সুজানগর উপজেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সাহিত্য, শিক্ষা, মুক্তিযুদ্ধ, কৃতি ব্যক্তিবর্গ ইত্যাদি বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করতে ভালোবাসেন।বিএসসি ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করে বর্তমানে একটি স্বনামধন্য ওয়াশিং প্লান্টের রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেকশনে কর্মরত আছেন। তিনি ১৯৯২ সালের ১৫ জুন পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার অন্তর্গত হাটখালী ইউনিয়নের সাগতা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

error: Content is protected !!