প্রকৃতিতে-হবো-লীন
কবিতা,  সাহিত্য

প্রকৃতিতে হবো লীন, প্রকৃতি আমার ভালোবাসা

প্রকৃতিতে হবো লীন

খোন্দকার হুমায়ূন কবীর

 

ফের যদি আমি জন্মই নিই
জন্মই নিই কভু
প্রকৃতির মাঝে লীন যেন হই
মিনতি জানাই প্রভু।

প্রকৃতি আমার প্রেম ভালোবাসা
প্রকৃতি আমার আশা
প্রকৃতি আমারে বাহুডোরে বেঁধে
কণ্ঠে দিয়েছে ভাষা।

প্রকৃতিকে আমি ভালোবেসে তাই
হতে চাই নদ-নদী
বুক ভরা জলে কুলকুল রবে
বয়ে যাবো নিরবধি।

নদী যদি হই পাল তুলে বুকে
বয়ে যাবে নাও কত!
মনোলোভা সেই দৃশ্য হেরে
হারাবোই অবিরত।

নদীর পাড়ের ঘন বন হতেও
আমার ইচ্ছে করে
হাজারো পাখি কলকাকলিতে
মুখর করবে স্বরে।

পাখিদের সুরে সুর মিলিয়ে
আমিও গাইব গান
মনের খুশিতে সে গানের তালে
ভরিয়ে তুলব প্রাণ।

বনের পাড়ের পাহাড়ও যদি
আমায় করো গো তুমি
তাও খুশি হবো, সানন্দচিত্তে
হতে পেরে প্রিয় ভূমি।

পাহাড় হলেও থাকবে বুকে
ইয়া বড় মাটি ঢিবি
মধুচন্দ্রিমায় আসবে সেখানে
প্রেমাস্পদ বউ বিবি।

নব যুগলের চরণ ছোঁয়া
ভালোবাসা মাখামাখি
আমার মনেও উঁকি দিয়ে যাবে
করে যাবে ডাকাডাকি।

মায়া জড়ানো ডাক শুনে শেষে
গেলে কেউ অর্ণবে
ভেজাবো তারে জলরাশি দিয়ে
করে দেবো জবজবে।

সাঁতার কাটবে – কী যে মজা হবে !
হাতে হাত রেখে সব
জলের বিহারে কাটাবে প্রহর
করবে কূজন রব।

হাসবে তারা হাসব আমিও
হেসেখেলে যাবে দিন
আসছে জন্মে প্রকৃতির মাঝে
হই যদি আমি লীন।

 

প্রকৃতি আমার ভালোবাসা

প্রকৃতি আমার প্রথম প্রণয়, শাশ্বত ভালোবাসা
প্রকৃতি আমার দুঃখ সুখে – বেঁচে থাকবার আশা।

প্রকৃতি আছে তাইতো আমি জীবনের মানে খুঁজি
প্রকৃতি আছে তাইতো আমি সুন্দর কী তা বুঝি।

ফুল সুন্দর পাখি সুন্দর – সুন্দর সাঁঝ তারা
প্রকৃতি আমায় এসব দিয়ে করেছে পাগলপারা।

প্রকৃতি দিয়েছে সাঁঝের আকাশ উষসীর রাঙা ভোর
যতই আমি দেখিনা তাদের, কাটে না দেখার ঘোর।

ঘোর লাগে আরও দখিনা বাতাসে জলধোয়া যদি পাই
ডুবো সূর্যের সিঁদুরে রঙেও ঘোরের আবেশ পাই।

আমি চাই খুব মনপ্রাণ দিয়ে পদ্মার কূলে বসি
আমি চাই আরও মনপ্রাণ দিয়ে জোছনা রাতের শশী।

আমি আরও চাই ধুলোমাখা পথে গরু ছাগলের দল
খুরের আগায় ধুলো উড়িয়ে গৃহে ফেরা কলরোল।

ধুলোমাখা পথ উদাসী দুপুর কোকিলের কুহুতান
মনটা আমার ভরিয়ে তোলে সৃষ্টিতে ডাকে বান।

সৃষ্টির বান ডাকা শুরু হলে কিছু কিছু লেখা আসে
প্রকৃতি তখন ক্যানভাস হয়ে মনের মুকুরে ভাসে।

প্রকৃতিকে নিয়ে এসব লিখেই আত্মতৃপ্তি পাই
প্রথম প্রণয়ী প্রকৃতি ঘিরেই জীবনের গান গাই।

আরও পড়ুন কবিতা-
অগ্নিশ্বর
তোমার প্রতীক্ষায়

 

 

ঘুরে আসুন আমাদের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলফেসবুক পেইজে

প্রকৃতিতে হবো লীন

Facebook Comments Box

প্রকৌশলী মো. আলতাব হোসেন, সাহিত্য সংস্কৃতি এবং সমাজ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে নিবেদিত অলাভজনক ও অরাজনৈতিক সংগঠন "আমাদের সুজানগর"-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং "আমাদের সুজানগর" ওয়েব ম্যাগাজিনের সম্পাদক ও প্রকাশক। সুজানগর উপজেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সাহিত্য, শিক্ষা, মুক্তিযুদ্ধ, কৃতি ব্যক্তিবর্গ ইত্যাদি বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করতে ভালোবাসেন।বিএসসি ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করে বর্তমানে একটি স্বনামধন্য ওয়াশিং প্লান্টের রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেকশনে কর্মরত আছেন। তিনি ১৯৯২ সালের ১৫ জুন পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার অন্তর্গত হাটখালী ইউনিয়নের সাগতা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

error: Content is protected !!