আহ্বান
কবিতা,  রমজান আলী খাঁন,  সাহিত্য

আহ্বান

আহ্বান

মো. রমজান আলী খাঁন 

 

যাবে বন্ধু যাবে মোর সাথে আমার মামার বাড়ি?
এমন যায়গায় যাব যেথায় চলে না কোনো গাড়ি।

তুমি গেলে সাজাব নৌকা ছই ঘিরব শাড়ি দিয়ে,
ছইয়ের ভিতরে মামার বাড়িতে যাব মাকে নিয়ে।

মামার বাড়ি শারীরভিটা দক্ষিণে গাজনার বিল,
গেলে সেথায় দেখবে উড়ছে শত শত বক-চিল।

গাজনার বিলে দেখতে পাবে হাজার রঙের পাখি,
সারা বিলে মাছ ধরে খায় ডানাতে ভর রাখি।

আমার মামা শারীরভিটার কাজি বংশের ছেলে,
কি সমাদর করে মামা দেখবে সেথায় গেলে।

মামার বাড়িতে গিয়ে খাব গাজনার বিলের কই,
নানির হাতের পায়েস খাব মোয়া-মুড়ি-দই।

তুমি গেলে দেখবে সেথায় শেওলার ফাঁকে ফাঁকে,
রুই কাতলা চিতল বোয়াল ঘুরছে ঝাঁকে ঝাঁকে।

জাল পেতে ধরব মাছ মামাকে নেব সাথে,
মাছ ধরার কি যে আনন্দ গাজনায় চাঁদনি রাতে।

যাবে বন্ধু যাবে মোর সাথে শারীরভিটার গাঁয়,
পাল তুলে নায়ে বিল পারি দিবো যা করে আল্লায়।

সপ্তাহ খানেক বেড়াব আমরা এবাড়ি-ওবাড়ি দিয়ে,
বেড়ানোর শেষে বাড়িতে আসব নানিকে সঙ্গে নিয়ে।

আরও পড়ুন কবিতা-
ভরে যায় মন
সুশিক্ষার অভাব
অষ্টাদশী মন

 

ঘুরে আসুন আমাদের সুজানগর এর অফিসিয়াল ফেসবুক ও  ইউটিউব চ্যানেলে

আহ্বান

Facebook Comments Box

প্রকৌশলী আলতাব হোসেন, সাহিত্য সংস্কৃতি বিকাশ এবং সমাজ উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে নিবেদিত অলাভজনক ও অরাজনৈতিক সংগঠন ‘আমাদের সুজানগর’-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং সাধারণ সম্পাদক। তিনি ‘আমাদের সুজানগর’ ওয়েব ম্যাগাজিনের সম্পাদক ও প্রকাশক। এছাড়া ‘অন্তরের কথা’ লাইভ অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধায়ক। সুজানগর উপজেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সাহিত্য, শিক্ষা, মুক্তিযুদ্ধ, কৃতি ব্যক্তিবর্গ ইত্যাদি বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করতে ভালোবাসেন। বিএসসি ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করে বর্তমানে একটি স্বনামধন্য ওয়াশিং প্লান্টের রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেকশনে কর্মরত আছেন। তিনি ১৯৯২ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ই জুন পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার অন্তর্গত হাটখালি ইউনিয়নের সাগতা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

error: Content is protected !!