শব্দহীন-অভিযাত্রা
কবিতা,  জাহাঙ্গীর পানু,  সাহিত্য

আমার কি আর সাধ্য আছে

আমার কি আর সাধ্য আছে

জাহাঙ্গীর পানু

 

আমার কি আর সাধ্য আছে।
রৌদ্র ফাটা ভর দুপুরে,
রাঙা মেঠো পথ মাড়িয়ে,
ধুলো মাখা নগ্ন পায়ে ;
তোমার কাছে যাবার।

 

আমার কি আর সাধ্য আছে।
পুকুর ধারে সব অলক্ষ্যে;
স্বচ্ছ কালো দীঘির জলে,
এক নিমিষে ডুবটি দিয়ে
ভোমরা এনে দেবার।

 

আমার কি আর সাধ্য আছে।
হিরক রাজার শাসন দেখে,
চুরির আজব নিয়ম দেখে,
আমি অধম প্রজা হয়ে
দাঁত কেলিয়ে হাঁসার।

 

আমার কি আর সাধ্য আছে।
দুঃশাসনের চিপায় থেকে,
অধিকারের ছবক দিয়ে,
আমার ভোট আমি দেবো
এমন কথা বলার।

 

আমার কি আর সাধ্য আছে।
তোমায় নিয়ে আপন মনে,
স্বপ্নলোকের সুদূর পানে,
থাকবো দুজন এক হৃদয়ে
এমন স্বপ্ন দেখার।

 

আমার কি আর সাধ্য আছে।
দল ক্ষমতার বড়াই করে
কোষাগারের অর্থ দিয়ে
রং তামাশার রায় নিয়ে
চেয়ারে বসে থাকার।

 

আমার কি আর সাধ্য আছে।
জনগণের অর্থ ফাঁকি দিয়ে,
সব সম্পদ  নিজে নিয়ে,
থাকবো আরাম আয়েস করে
এমন নেতা হবার।

 

আমার কি আর সাধ্য আছে।
অবৈধ সম্পদের পাহাড় গড়ে,
সুইজ ব্যাংকে হিসাব খুলে,
অর্থকড়ি পাচার করে
বিদেশ পাড়ি দেবার।

 

আমার কি আর সাধ্য আছে।
শিশির ভেজা শরত ভোরে,
শিউলি ফুলের মালা গেঁথে,
ভালোবাসার রং মাখিয়ে
তোমার হাতে দেবার।

 

আমার কি আর সাধ্য আছে।
চৈত্র নিশির চাঁদের রাতে,
তোমার হাতে হাত রাখিয়ে,
রুপকথারই গান শুনিয়ে
তোমায় কাছে পাবার।

 

ঘুরে আসুন আমাদের ফেসবুক পেইজে

Facebook Comments Box

প্রকৌশলী আলতাব হোসেন, সাহিত্য সংস্কৃতি বিকাশ এবং সমাজ উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে নিবেদিত অলাভজনক ও অরাজনৈতিক সংগঠন ‘আমাদের সুজানগর’-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং সাধারণ সম্পাদক। তিনি ‘আমাদের সুজানগর’ ওয়েব ম্যাগাজিনের সম্পাদক ও প্রকাশক। এছাড়া ‘অন্তরের কথা’ লাইভ অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধায়ক। সুজানগর উপজেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সাহিত্য, শিক্ষা, মুক্তিযুদ্ধ, কৃতি ব্যক্তিবর্গ ইত্যাদি বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করতে ভালোবাসেন। বিএসসি ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করে বর্তমানে একটি স্বনামধন্য ওয়াশিং প্লান্টের রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেকশনে কর্মরত আছেন। তিনি ১৯৯২ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ই জুন পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার অন্তর্গত হাটখালি ইউনিয়নের সাগতা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

error: Content is protected !!