ভালবাসা-রঙ-বদলায়
কবিতা,  জিন্নাত আরা রোজী,  সাহিত্য

ভালবাসা রঙ বদলায়

ভালবাসা রঙ বদলায় 

-জিন্নাত আরা রোজী 

 

যদি একদিন আমার খোঁপায় ফুল গুঁজে দিয়ে বলতে
চল না বৃষ্টিতে ভিজি দু’জন মিলে,
বৃষ্টিতে ভিজে যতটা না সুখ অনুভব করতাম
তার চেয়ে বেশী সুখ পেতাম তোমার এই চাওয়াতে।

 

গোধুলির লগ্নে আমার হাত দু’টি ধরে যদি বলতে
চল না নদীর পাড়ে বসে গল্পের ডালি সাজাই দু’জনে
আমার হাত ধরাতে যতটা না খুশী হতাম
তার চেয়ে আরো অধিক খুশী হতাম তোমার আবেগ দেখে।

 

সকালের শিশির ভেজা ঘাসের উপর
একসাথে যদি কিছুটা পথ হাঁটতে বলতে
শিশিরে আমার পা যতটা না ভিজতো
এর চেয়ে অনেকটা বেশী আমার মন ভিজতো তোমার ভালবাসায়।

 

সুতির গোলাপি রঙের একটা শাড়ি এনে
সাথে সদ্য ফোটা গোলাপ ফুলের মুকুট পরিয়ে যদি বলতে
“বাহ্ খুব মায়াবী দেখাচ্ছে তোমাকে”
পৃথিবীর সব সুখ যেন আমার পায়ের কাছে লুটোপুটি খেত।

 

আমার হাসিটা দেখে
যদি কোন একদিন দুষ্টামির ছলে বলতে
তোমার হাসি দারুণ মিষ্টি
তাহলে আমি আজীবন হাসতে থাকতাম।

 

সত্যিই যদি কোন এক বিকেলে প্রাণ খুলে বলতে
তোমাকে অনেক অনেক ভালবাসি,

আর কারো নয়
তাহলে ভালবাসার সব রঙ দেখা হয়ে যেত আমার।

 

তোমার থেকে এসব আর পাওয়া হলো না
তবে ভালবাসার রঙ বদলায় এটা জানা হলো;
তোমার ভালবাসায় মন না ভিজলেও
চোখজোড়া আমার প্রতিনিয়তই ভিজে যায়….

 

ঘুরে আসুন আমাদের ফেসবুক পেইজে

ভালবাসা রঙ বদলায়

Facebook Comments Box

প্রকৌশলী মো. আলতাব হোসেন, সাহিত্য সংস্কৃতি এবং সমাজ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে নিবেদিত অলাভজনক ও অরাজনৈতিক সংগঠন "আমাদের সুজানগর"-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং "আমাদের সুজানগর" ওয়েব ম্যাগাজিনের সম্পাদক ও প্রকাশক। সুজানগর উপজেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সাহিত্য, শিক্ষা, মুক্তিযুদ্ধ, কৃতি ব্যক্তিবর্গ ইত্যাদি বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করতে ভালোবাসেন।বিএসসি ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করে বর্তমানে একটি স্বনামধন্য ওয়াশিং প্লান্টের রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেকশনে কর্মরত আছেন। তিনি ১৯৯২ সালের ১৫ জুন পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার অন্তর্গত হাটখালী ইউনিয়নের সাগতা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

error: Content is protected !!